মুশফিকের সেঞ্চুরি বিফলে, তামিমদের জয়

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট
বৃহস্পতিবার, ১৫ অক্টোবর ২০২০, রাত ১১:০২

স্পেশাল করেসপন্ডেন্টঃ একজন মেহেদী হাসানের আক্রমণাত্মক ব্যাটিংয়ের কল্যাণে বিসিবি প্রেসিডেন্টস কাপে প্রথমবার দুইশোর বেশি রান দেখা গেল। স্রোতের বিপরীতে তেড়েফুড়ে তার ব্যাট চালানো ইনিংসটাই বৃহস্পতিবার ম্যাচের গতিপথ নির্ধারণ করে দিয়েছে। মুশফিকুর রহিমও একপ্রান্ত আগলে লড়াই করে গেছেন। তবে জয়ের হাসি তার সঙ্গী হয়নি। তার সেঞ্চুরি ম্যাড়ম্যাড়ে ম্যাচটাতে কিছুটা রঙ এনে দিয়েছিল। সেঞ্চুরির পরও ট্র্যাজিক হিরো মুশফিক। বৃহস্পতিবার রাতে টুর্নামেন্টের তৃতীয় ম্যাচে মিরপুর স্টেডিয়ামে নাজমুল একাদশকে ৪২ রানে হারিয়েছে তামিম একাদশ।  

টসে হেরে ব্যাট করে মেহেদী হাসানের হাফ সেঞ্চুরিতে ৯ উইকেটে ২২১ রান তুলেছিল তামিম একাদশ। জবাবে ৪৫.৪ ওভারে ১৭৯ রানে অলআউট হয় নাজমুল একাদশ। মেহেদী হাসান ম্যাচ সেরা হন। তামিম একাদশের এটি প্রথম জয়। তিন ম্যাচ শেষে প্রতিটি দলের জয় এখন একটি করে।

রান তাড়া করতে নেমে নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারিয়েছে নাজমুল একাদশ। মুশফিক একাই লড়েছেন। সাইফউদ্দিনকে দুটি চার মেরে ১০৩ বলে সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন। আগের টানা তিন ইনিংসে বোল্ড হয়েছিলেন তিনি। সেঞ্চুরি দিয়ে রানে ফিরলেন এই অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান। কিন্তু দলের হার ঠেকাতে পারেননি। ১০৯ বলে ১০৩ রান (৯ চার, ১ ছয়) করে আউট হন মুশফিক। ইরফান ২৪, আফিফ ১৫ রান করেন। শরীফুল ৪টি, মুস্তাফিজ ৩টি, সাইফউদ্দিন ২টি করে উইকেট নেন।

এর আগে মিরপুরের উইকেটে ব্যাটসম্যানদের রান খরা, লো স্কোরিং ম্যাচের মিছিলকে সঙ্গী করেই হাঁটছিল তামিম একাদশের ব্যাটিং। ১২৮ রানেই নেই ৮ উইকেট! দৃশ্যপটে পরিবর্তন আনেন মেহেদী হাসান। নবম ব্যাটসম্যান হিসেবে উইকেটে আসেন কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের হয়ে বিপিএলে নজর কাড়া এই তরুণ অলরাউন্ডার। ব্যাট হাতে পাল্টা আক্রমণে ম্যাচে প্রাণ ফেরান তিনি। নাজমুল একাদশের বোলারদের তৈরি করা চাপের শৃঙ্খল উবে যায় তাতেই। ইনিংসের শেষের ২ বল আগে আউট হওয়ার আগে ৫৭ বলে ৮২ রানের (৯ চার, ৩ ছয়) ইনিংস খেলেন মেহেদী।

ইনিংসের শুরুতে দুটি চারের পর তানজিদ হাসান তামিম (৮) আল-আমিনের শিকার হন। তারপরই আসা-যাওয়ার মিছিল শুরু। বিজয় (১২), মিঠুন (৪) রান করে ফিরেন। দলীয় ৬৫ রানে তামিম আউট হন ৩৩ রান করে। মোসাদ্দেক ৪৬ বলে ১২ রান করেন। আকবর আলী (২), দিপু, সাইফউদ্দিনরা (৩) দ্রুত ফিরলে ৮ উইকেট হারিয়ে বসে তামিম একাদশ। একপ্রান্ত আগলে থাকা দিপু ৩১ রান করেন।

৯ম উইকেটে তাইজুলের সঙ্গে ৯৫ রানের জুটি গড়েন মেহেদী। বৃষ্টিতে ৬৭ মিনিট খেলা বন্ধ থাকার পর সৌম্যর এক ওভারে দুটি চার ও দুটি ছক্কা মারেন তিনি। ৪৪ বলে করেন হাফ সেঞ্চুরি। তাইজুল ২০ রান করে অপরাজিত ছিলেন। নাজমুল একাদশের পক্ষে রিশাদ ২১ রানে ৪টি, আল-আমিন, নাঈম ২টি করে, তাসকিন-মুকিদুল ১টি করে উইকেট পান।

 

- নট আউট / এমজেএ

সবশেষ ফলাফল [ ফলাফল পাতা ]

কিংস এলিভেন পাঞ্জাব 12 রানে জয়ী।
৪৩তম ম্যাচ, দুবাই
কিংস এলিভেন পাঞ্জাব 126/7 (20.0)
সানরাইজার্স হাইদ্রাবাদ 114/10 (19.5)
২৪ অক্টোবর ২০২০, রাত ৮টা
আইপিএল, ২০২০
কলকাতা 59 রানে জয়ী।
৪২তম ম্যাচ, আবুধাবি
কলকাতা 194/6 (20.0)
দিল্লী ক্যাপিটালস 135/9 (20.0)
২৪ অক্টোবর ২০২০, বিকাল ৪টা
আইপিএল, ২০২০
মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স 10 উইকেটে জয়ী।
৪১তম ম্যাচ, শারজা
চেন্নাই সুপার কিংস 114/9 (20.0)
মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স 116/0 (12.2)
২৩ অক্টোবর ২০২০, রাত ৮টা
আইপিএল, ২০২০
সানরাইজার্স হাইদ্রাবাদ 8 উইকেটে জয়ী।
৪০তম ম্যাচ, দুবাই
রাজস্থান রয়েলস 154/6 (20.0)
সানরাইজার্স হাইদ্রাবাদ 156/2 (18.1)
২২ অক্টোবর ২০২০, রাত ৮টা
আইপিএল, ২০২০
ব্যাঙ্গালুরো 8 উইকেটে জয়ী।
৩৯তম ম্যাচ, আবুধাবি
কলকাতা 84/8 (20.0)
ব্যাঙ্গালুরো 85/2 (13.3)
২১ অক্টোবর ২০২০, রাত ৮টা
আইপিএল, ২০২০
কিংস এলিভেন পাঞ্জাব 5 উইকেটে জয়ী।
৩৮তম ম্যাচ, দুবাই
দিল্লী ক্যাপিটালস 164/5 (20.0)
কিংস এলিভেন পাঞ্জাব 167/5 (19.0)
২০ অক্টোবর ২০২০, রাত ৮টা
আইপিএল, ২০২০